শিক্ষকদের ৯টা-৩টা বিদ্যালয়ে থাকার বিষয়টি খোলাসা করলেন সচিব

ছুটি চলাকালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সব শিক্ষককে বিদ্যালয়ে সকাল ৯টা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত বসে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। তবে বিদ্যালয় খোলার উপযোগী করা এবং অভিভাবকদের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পাঠ্যবই পড়ার বিষয়টি প্রধান শিক্ষক নিশ্চিত করবেন।

পরীক্ষা পেছানোর দাবিসহ কয়েকটি দাবি জানাতে মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতির নেতাদের প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব গোলাম মো. হাসিবুল আলম এ কথা জানান।

সচিবের সঙ্গে বৈঠকে সহকারী শিক্ষক সমিতির ঢাকা মহানগর আহবায়ক নিগার সুলতানা ও যুগ্ম-আহবায়ক তাসলিমা সুলতানা শিক্ষকদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

কিছু কিছু জেলা ও উপজেলায় শিক্ষকদের প্রতিদিন বিদ্যালয়ে গিয়ে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অবস্থানের মৌখিক নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে বলে অনেক শিক্ষক অভিযোগ করছেন। মঙ্গলবার সাক্ষাতের সময় এমন কোনও নির্দেশনা রয়েছে কিনা বিষয়টি সচিবের কাছে জানতে চান শিক্ষক নেতারা। সচিব শিক্ষক নেতাদের বলেন,

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে পরিপত্র জারি হয়েছে। কাউকে ৯টা থেকে ৪টা থাকার কোনও লিখিত বা মৌখিক নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। তবে বিদ্যালয় খোলার উপযোগী, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষটি নিশ্চিত করতে হবে এবং পাঠ্যবই পড়ার বিষয়ে প্রধান শিক্ষকরা অভিভাবকদের মাধ্যমে নিশ্চিত করবেন।’

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব ও সহকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ শামছুদ্দীন মাসুদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আবাসন সংকটের কথা বিবেচনায় রেখে ডিপিএড পরীক্ষা পেছানোর দাবির কথা জানানো হয়েছে সচিবকে। এছাড়া শিক্ষকদের বিভিন্ন সমস্যার কথা জানানো হলে তিনি সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *