১১৭ মণ ইলিশ,হাতিয়ায় এক ট্রলারে মিললো

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদী সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে এক ট্রলারে ১১৭ মণ ইলিশ ধরা পড়েছে। ইলিশগুলো নিলামে ১৪ লাখ ৫৬ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার পর ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ, উৎসবে মেতেছেন জেলেরা
মা ইলিশ রক্ষায় ছাড় নেই: আইজিপি
আজ মধ্যরাত থেকে মেঘনায় ইলিশ শিকারে নামবে জেলেরা
বৃহস্পতিবার (০৩ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে হাতিয়ার চেয়ারম্যান ঘাটের মেঘনা ফিশিংয়ে এসব ইলিশ বিক্রি করা হয়।

ট্রলারের মালিক কামাল কোম্পানি বলেন, আমরা ২২জন জেলে ভোলার দৌলতখান থেকে মাছ ধরতে যাই। ৫ দিনে এতো মাছ ধরতে পেরে আনন্দিত। আল্লাহ আমাদের ভালো মাছ দিয়েছেন।

এফবি রায়হানের সারেং সফিক মাঝি বলেন, ইলিশের আকার বিভিন্ন ধরনের হয়েছে। তবে সাগরের ইলিশ বড় বড়। আমরা ফোনে যোগাযোগ করে সব মাছ মেঘনা ফিশিংয়ে বিক্রি করেছি। এখানে ভালো দামও পেয়েছি।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসেন বলেন, মা ইলিশ রক্ষায় মৎস্য অধিদপ্তরের ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা সফল হয়েছে। জেলেরা ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ পাচ্ছে।

মেঘনা ফিশিংয়ের ম্যানেজার মো. হাবিব ভূঁইয়া বলেন, এফবি রায়হান-১ বোটের মালিকের বাড়ি ভোলায়। তিনি ফোনে মাছ পাওয়ার কথা জানালে আমরা চেয়ারম্যান ঘাটে আসতে বলি। ১১৭ মণ ইলিশ মাছ ১২ হাজার ৪৪৪ টাকা করে নিলামে ১৪ লাখ ৫৬ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে।

হাতিয়া মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও হরণী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আখতার হোসাইন বলেন, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার পর গভীর সমুদ্রে যাওয়া ফিশিং বোট ফিরতে শুরু করেছে। বিভিন্ন সাইজের ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *