ড্রাইনেস দূর করে এই পদ্ধতিতে ঠোঁটের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনুন!

সুন্দর ঠোঁট আপনার হাসিটা আরও বেশি চমৎকার ও আকর্ষণীয় করে তোলে। কিন্তু অনেক সময় আমরা ঠোঁটের যত্নে যত্নহীন হয়ে পড়ি । প্রকৃতপক্ষে ত্বকের যত্নের মত ঠোঁটের যত্নের প্রয়োজন রয়েছে। সঠিক যত্নের অভাব যেমন চেহা্রায় বয়সের ছাপ সৃষ্টি করে ঠিক তেমনি আস্তে আস্তে বয়সের ছাপ ঠোঁটের ওপর প্রভাব ফেলে । ঠোঁটে বয়সের ছাপ পড়লে ঠোঁট নিজের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। এর ফলে ঠোঁটে দেখা যায় ড্রাইনেস , ডার্ক সহ নানা সমস্যা।

ঠোঁটের যত্ন
শরীরের কোমনীয় ও অত্যন্ত নাজুক একটি অঙ্গ হল ঠোঁট। তাই ঠোঁটকে সুস্থ রাখতে প্রয়োজন নিয়মিত ঠোঁটের যত্ন । বেশিরভাগ মানুষ শুধুমাত্র শীতকালে ঠোঁটের যত্ন নিয়ে থাকে কিন্তু অন্যান্য সময় ঠোঁটের যেন কোন পাত্তাই নেই। এটা ঠিক যে সারা বছর ঠোঁটের যত্ন নিলেও শীতকালে ঠোঁটের অতিরিক্ত যত্নের প্রয়োজন আছে। তবে সারা বছর যেন ঠোঁটের যত্নের কোনো ঘাটতি না থাকে । আজকে আমি আপনাদের সাথে কিছু উপায় শেয়ার করব যার সাহায্যে আপনারা শীতকাল সহ সারা বছর ঠোঁটের যত্ন নিয়ে ঠোঁটের ড্রাইনেস দূর করে ঠোঁটের যত্ন নিয়ে ঠোঁটের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

ঠোঁটের ড্রাইনেস দূর করার উপায়ঃ
সকালে দাঁত ব্রাশ করার সময় দাঁত ব্রাশ করা হয়ে গেলে টুথপেস্ট ছাড়া খালি ব্রাশ দিয়ে হালকা আলতো করে ৩০ সেকেন্ড বা ১ মিনিট ঠোঁট মেজে নিবেন। এতে আপনার ঠোটের মৃতকোষ দূর হয়ে যাবে। যেখানে মানুষের শরীরের অন্য অঙ্গগুলো ১৫টি স্তর দিয়ে গঠিত সেখানে ঠোঁটের মধ্যে এরকম স্তর রয়েছে মাত্র ৩ থেকে ৫ টি। এ থেকে সহজে বোঝা যায় অন্যান্য অঙ্গের চেয়ে ঠোঁটের প্রতিরক্ষা ক্ষমতা কম।

বাইরের আবহাওয়া, ধূলা, সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি হতে রক্ষা করার জন্য বাইরে বের হওয়ার সময় যেকোনো লিপবাম অথবা পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে যেতে হবে। এছাড়াও প্রতি রাতে ঘুমাতে যাবার আগে লিপবাম লাগিয়ে ঘুমাতে হবে। বাজারে বিক্রিত লিপবামের চেয়ে বাড়িতে লিপবাম তৈরি করতে পারলে খুব ভালো। একত্রে আপনারা লিপবাম বাড়িতে তৈরি করার জন্য খুব সহজেই অ্যালোভেরার লিপবাম তৈরি করতে পারেন । আমি আপনাদের সাথে বাড়িতে খুব সহজে লিপবাম তৈরির পদ্ধতি শেয়ার করছি । শুধুমাত্র দুটি উপাদান দিয়ে লিপবাম তৈরি করতে পারবেন ।

লিপবাম তৈরি করার প্রয়োজনীয় উপাদানঃ

অ্যালোভেরা জেল ৪ চা চামচ

নারিকেল তেল ১ চা চামচ

যেভাবে তৈরি করবেনঃ

একটি পরিষ্কার বাটিতে অ্যালোভেরা জেল ও বিশুদ্ধ নারকেল তেল নিবেন । এরপর উপাদান দুটিকে খুব ভালোভাবে মিশিয়ে দিতে হবে। এরপর মিশ্রণ তৈরি হয়ে এলে একটি পরিষ্কার কোটায় সংরক্ষন করুন ।

ব্যবহার করবেন যেভাবে / ব্যবহার বিধিঃ
বাইরে বের হবার আগে ঠোঁট পানি দিয়ে মুছে নিয়ে এটি ব্যবহার করুন । তবে লাগানোর আগে খেয়াল রাখবেন ঠোঁটে যেন পানি না থাকে।

কাজ করার কারণঃ
অ্যালোভেরা ঠোঁটের ড্রাইনেস কে দূর করে দিয়ে ঠোঁটের রং কে পুনরায় সংরক্ষণ করবে। যেহেতু অ্যালোভেরার মধ্যে প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজিং প্রপার্টি রয়েছে তাই অ্যালোভেরার এই লিপবাম ঠোঁটের ময়েশ্চারকে বন্ধ করে ঠোঁটে ক্রেক আসতে দিবে না। যার ফলে ঠোঁটের ড্রাইনেস পুরোপুরি দূর হয়ে যাবে , ঠোঁট ফাটা প্রতিরোধ হবে এবং ঠোঁট সুন্দর ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

নোটঃ
১। এই লিপবাম ৭ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করে ব্যবহার করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *