হাতের মেহেদি না মুছতেই লা”শ হলো স্বর্ণা

হাতের মেহেদির রং না মুছতেই নববধূ স্বর্ণা আক্তার মিমের (১৮) ঝু”ল”ন্ত লা’শ উদ্ধার করা হয়েছে। কারণ হিসেবে জানা গেছে, প্রেমের বিয়ে তাই মেনে নেয়নি শ্বশুরবাড়ির লোকজন। স্বামীর বাড়ি যাওয়ার অনিশ্চয়তার ক্ষোভে তিনি পিতার বাড়িতে আমগাছে ফাঁ”স লা”গি”য়ে আ”ত্মহ’ত্যা’র পথ বেছে নেন।

ঘটনাটি ঘটেছে দেবীদ্বার উপজেলার ধামতী (উত্তরপাড়া) গ্রামের ফকির বাড়ির পাশে। গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে সংবাদ পেয়ে দেবীদ্বার থানা পুলিশ নিহতের লা”শ উদ্ধার করে।

তবে পরিবারের দাবি এটি আ’ত্মহ”ত্যা নয়, তাকে হ”ত্যা করে গাছে ঝু”লি”য়ে রাখা হয়েছে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে লা”শ দেখতে ওই বাড়িতে উৎসুক জনতা ভিড় জমায়।

স্থানীয়রা জানায়, গত ১৯ এপ্রিল স্বর্ণার সাথে একই গ্রামের রহিম মাস্টারের ছেলে মো. কামরুল হাসানের বিয়ে হয়। প্রেমের সম্পর্ক থাকার কারণে তাদের বিয়েটা হয় কোর্টে। কিন্তু ছেলের পরিবার এ বিয়ে মেনে না নেয়ায় মিম তার বড় বোনের বাসায় থাকতেন।

নিহতার স্বামী মো. কামরুল হাসান জানান, আমার স্ত্রীর সাথে বিয়ের পর থেকে এ পর্যন্ত কোনো পারিবারিক ক”ল”হ ছিল না। রাত ১২টার দিকে তার সাথে ফোনে কথা বলছি।

দেবীদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান জানান, নিহতার লা”শ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে এটি হ”ত্যা না আ”ত্মহ”ত্যা ময়নাতদন্তের রির্পোট পেলেই নিশ্চিত করে বলা যাাবে। বিষয়টি তদন্তাধীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *